জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষে মেরন সান স্কুল এন্ড কলেজের ক্রিড়া প্রতিযোগিতা সম্পন্ন


নগরীর মেরন সান স্কুল এন্ড কলেজের উদ্যোগে জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষে আজ ১৭ মার্চ সকাল ৮টা থেকে ক্রিড়া প্রতিযোগিতা ও আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। অধ্যক্ষ ড. মোহাম্মদ সানাউল্লাহ্র সভাপতিত্বে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম টিচার্স ট্রেনিং কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর রূপেশ চন্দ্র চৌধুরী। অন্যান্যদের মধ্যে ছিলেন চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতালের কার্যকরী পরিষদের ভাইস প্রেসিডেন্ট এবং মেরন সান কলেজের পরিচালনা পরিষদের চেয়ারম্যান লায়ন সৈয়দ মোরশেদ হোসেন, চট্টগ্রাম টিচার্স ট্রেনিং কলেজের প্রভাষক মীর আবু সালেহ মোহাম্মদ শামসুদ্দিন শিশির, মেরন সান স্কুল এন্ড কলেজের উপাধ্যক্ষ মোহাম্মদ শওকত ওসমান, চিফ একাডেমিক কো-অর্ডিনেটর শিহাব ইকবাল, শিক্ষক রাহমাতুল্লাহ আজাদ, শহীদুল ইসলাম, এইচ এম ফরহাদ চৌধুরী, স্বপন কুমার বিশ্বাস, পলাশ দত্ত, এমদাদ হোসেন, ছরওয়ার উদ্দিন আরবী, ইউসুফ আলী খান, সুপর্ণা বিশ্বাস, শায়লা রহমান, তাপসী দাশ, চম্পা দে, দিলরুবা তাহেরুন, ফেরদৌসী ইয়াসমিন রেনী প্রমুখ। স্বাধীনতার স্থপতি মহান নেতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৭তম জন্মদিন এবং জাতীয় শিশু দিবস হিসেবে মেরন সান স্কুল এন্ড কলেজ অত্যন্ত গুরুত্বের সাথে দিনটি উদযাপন করে। পবিত্র কোরআন তেলাওয়াতের মাধ্যমে সকাল ৮ টা থেকে অনুষ্ঠানের কার্যক্রম শুরু করা হয়। এই দিনটি উদযাপন উপলক্ষে আয়োজিত প্রতিযোগিতায় শিক্ষার্থীরা সারাদিন ছিল অনাবিল আনন্দ-উৎসবে মুখরিত।
সকালে অ্যাসেম্বলি, ছাত্রী ও মহিলা অভিভাবকদের মিউজিক্যাল চেয়ার প্রতিযোগিতা, ছাত্রদের ১০০ মি. ও ২০০ মি. দৌঁড় প্রতিযোগিতা, দীর্ঘ লাফ ইত্যাদি বিভিন্ন ইভেন্টে শিক্ষার্থীদের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণে প্রত্যেকটি ইভেন্টে  ছিল টান টান উত্তেজনা। অনুষ্ঠানে চট্টগ্রাম টিচার্স ট্রেনিং কলেজের অধ্যক্ষ বলেন, “খেলাধুলা হচ্ছে সহপাঠক্রমিক কার্যক্রম। এটি নিয়মিত চর্চার মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের নানামুখী প্রতিভার বিকাশ ঘটে। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান শিশুদের খেলাধুলাসহ সকল সহপাঠক্রমিক কার্যক্রমকে উৎসাহিত ও সমৃদ্ধকরণপূর্বক অনেক দূর এগিয়ে নিয়েছিলেন। মেরন সান স্কুল এন্ড কলেজের শিক্ষার্থীদের সুশৃঙ্খলভাবে প্রতিটি ক্রিড়া ইভেন্টে অংশগ্রহণ এবং এই মনোরম পরিবেশের ফলে শিক্ষার্থীরা সত্যিকারের আলোকিত মানুষ হিসেবে নিজেদেরকে গড়ে তুলতে পারবে।” অধ্যক্ষ ড. মোহাম্মদ সানাউল্লাহ্ বলেন, “প্রতিটি শিশুর বিকাশ লাভের অধিকার রয়েছে আর এজন্য উপযুক্ত পরিবেশ সৃষ্টি করা আমাদের নৈতিক দায়িত্ব। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান তাঁর মেধা, মনন ও যোগ্যতার কাক্সিক্ষত বিকাশের মাধ্যমে শিশুদের জন্য সহপাঠক্রমিক কার্যাবলির উপযুক্ত পরিবেশ সৃষ্টি করতে পেরেছিলেন। শ্রেণি কার্যক্রমের পাশাপাশি মেরন সান স্কুল এন্ড কলেজে সম্পন্ন হয় ক্রিড়া ও সাংস্কৃতিক চর্চাসহ অন্যান্য সহপাঠক্রমিক কার্যক্রম যা প্রতিটি শিক্ষার্থীকে সুনাগরিক হিসেবে গড়ে তোলার ক্ষেত্রে সহায়ক ভূমিকা পালন করে।” দীর্ঘসময় মাঠে অবস্থান করে প্রতিটি ইভেন্টে সুন্দর ও সৃশৃঙ্খলভাবে অংশগ্রহণপূর্বক সফলভাবে অনুষ্ঠানের পরিসমাপ্তির জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে তিনি ধন্যবাদ জানান। অনুষ্ঠানে মেরন সান স্কুল এন্ড কলেজের সকল শিক্ষার্থী, শিক্ষক ও অভিভাবক উপস্থিত ছিলেন।
Share on Google Plus

0 comments: